Thursday, January 12, 2017

ঘুম ভেঙে যায়






ক্ষণ কুমার ঘটক মূলত নাটক পরিচালনা করেন, অভিনয় করেন। সঙ্গে কবিতাও লেখেন। এই তাঁর কবিতার বই। তেরটি কবিতার ২৩ পৃষ্ঠার ছোট্ট বই। সব কটি কবিতার ইংরেজি অনুবাদ করেছেন পার্থপ্রতীম আচার্য। বেরিয়েছিল আগরতলা বইমেলাতে, ফেব্রুয়ারি ২০১৫তে।
               আশা করছি ভালো লাগবে। আপনি কম্পিউটারের পুরো পর্দা জুড়ে পড়তে পারেন। নামিয়ে নিয়ে অবসরে পড়তে পারেন। আপনার শুধু দরকার পড়তে পারে এডোব ফ্লাস প্লেয়ারের, সেটি এখান থেকে নামিয়ে নিন ( ম্যাক-কাফেসিকিউরিটি সফটোয়ার এড়িয়ে যাবেন) 

অভিনয় ত্রিপুরাঃ ৮ম বর্ষ, ১ম সংখ্যাঃ জুলাই-ডিসেম্বর,২০১৫

" অভিনয় ত্রিপুরা'  অষ্টম বর্ষ - প্রথম সংখ্যা (জুলাই ২০১৫ - ডিসেম্বর ২০১৫)। । এর আগেও তিনটি  সংখ্যা এসেছিল 'কাঠেরনৌকো'তে। মুনমুন ঘটকের সম্পাদনাতে বেরোয় পশ্চিম ত্রিপুরার , দক্ষিণ বাধার ঘাট থেকে।  নাটক যে অভিনয় করা বা দেখবার বাইরেও একটি সাহিত্যিক বিষয়, সাধারণত আমাদের সাহিত্যের কাগজগুলোও ভুলে থাকেন। তাই , নাটক প্রায়ই প্রকাশের মুখ দেখে না। উত্তর পূর্বাঞ্চলে বহু প্রতিভাবান নাট্যকার থাকা সত্ত্বেও করতে গেলে নাটক পাওয়া ভার হয়। অভিনয় ত্রিপুরা এই ঘরানা পালটে দিচ্ছে। নিয়মিত নাটক প্রকাশ করছে । তবে এই সংখ্যাতে কোনো প্রকাশিত নাটক নেই, আছে নাটক নিয়ে বেশ কিছু প্রবন্ধ।  লিখেছেন – হারাধন দত্ত (যাত্রাপালা ও ফেলে আসা দিন), অচ্যুত চক্রবর্তী (নাটক গুণধরের অসুখ, অন্য চোখে), নন্দন কুমার ঘোষ (ভীষ্মদেব স্মৃতি ছোটোদের নাটক প্রতিযোগিতা), শংকরী দাস (স্বাধীনোত্তর ত্রিপুরার বাংলা নাটক, দেশভাগ ও উদ্বাস্তু সমস্যা), প্রণব মজুমদার (মঞ্চে সে আর লং মার্চ), রঞ্জন গঙ্গোপাধ্যায় (এই জীবন এই থিয়েটার), নীলাঞ্জন ঘোষ (এস এফ আই আয়োজিত কলেজ নাটক প্রতিযোগিতা), রণজিৎ পুরকায়স্থ(উত্তুরে রঙ্গ)।
সম্পাদনা সমিতির অন্যতম সদস্য কবি-অভিনেতা লক্ষণ কুমার ঘটক এই সংখ্যার পিডিএফ পাঠানোতে আমরা তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ। আশা করছি অতীতের সংখ্যাগুলোও তিনি পরে পরে পাঠাবেন। পরের সংখ্যাগুলোতো পাঠাবেনই। যদি লেখা পাঠাতে চান, বা ছাপা প্রতিলিপি পেতে চান তবে আগ্রহীদের জন্যে ঠিকানা ইত্যাদি নিচে রইল।
 ছবিগুলোতে দু'বার করে ক্লিক করুন। বড় হয়ে যাবে। পড়তে পারবেন।আপনি কম্পিউটারের পুরো পর্দা জুড়ে পড়তে পারেন। নামিয়ে নিয়ে অবসরে পড়তে পারেন। আপনার শুধু দরকার পড়তে পারে এডোব ফ্লাস প্লেয়ারের, সেটি এখান থেকে নামিয়ে নিন ( ম্যাক-কাফেসিকিউরিটি সফটোয়ার এড়িয়ে যাবেন) 

Sunday, November 6, 2016

সাহিত্য ১৩৩; বর্ষ ৫০, সংখ্যা ২


       বিজিৎ ভট্টাচার্য, আর এখন শিখা ভট্টাচার্য সম্পাদিত 'সাহিত্য' পত্রিকার পরিচয় দেয়াই বাহুল্য। পূর্বোত্তর ভারতের সবচাইতে দীর্ঘজীবি কাগজ এই 'সাহিত্য'। দক্ষিণ আসামের প্রত্যন্ত হাইলাকান্তি থেকে প্রকাশিত এই পত্রিকাটি সম্প্রতি পঞ্চাশ (৫০) বছর পূর্ণ করেছে। গেল ২৩শে অক্টোবর, ২০১৬ হাইলাকান্দিতে হয়ে গেল 'সাহিত্য উৎসব ২০১৬' । সম্প্রতি বেরুলো সেই পঞ্চাশ বছরের দ্বিতীয় সংখ্যা। দশক দুই আগেকার কিছুদিন বিরতি বাদ দিলে শুধু গ্রাহকদের উপরে নির্ভর করেই কাগজটি নিয়মিত বেরিয়ে যাচ্ছে। এক সুপরিকল্পিত সাংগঠনিক এবং সম্পাদনা কৌশলই একে সম্ভব করেছে। এই অব্দি বেরিয়েছে ১৩৩টি সংখ্যা। 'সুবর্ণজয়ন্তী বর্ষ উৎসব সংখ্যা'।   এই সংখ্যাটির থেকেই 'সাহিত্য' আন্তর্জালের জন্যে উপস্থিত হলো। পিডিএফ পাঠাবার জন্যে সম্পাদক শিখা ভট্টাচার্যকে কাঠের নৌকার তরফে অশেষ ধন্যবাদ। আশা করি, ভবিষ্যৎ সংখ্যাগুলোও আসতে থাকবে। আন্তর্জালে প্রথম সংখ্যা বলে কিছু প্রায়োগিক ত্রুটি থেকে গেছে। যেমন ছবি গুলো নেই। বা কিছু হরফ পিডিএফে জুড়ে গেছে। আশা করছি এতে পড়তে বিশেশ অসুবিধে হবে না এবং পরের সংখ্যাতে এই সব সমস্যাও থাকবে না।
সম্পাদকের ঠিকানা এবং কাগজ সম্পর্কিত কিছু তথ্য, এই সংখ্যার সূচিপত্র, এবং 'সাহিত্য উৎসব ২০১৬'-এর কিছু ছবি রইল।

    
আপনি কম্পিউটারের পুরো পর্দা জুড়ে পড়তে পারেন। নামিয়ে নিয়ে অবসরে পড়তে পারেন। আপনার শুধু দরকার পড়তে পারে এডোব ফ্লাস প্লেয়ারের, সেটি এখান থেকে নামিয়ে নিন ( ম্যাক-কাফে সিকিউরিটি সফটোয়ার এড়িয়ে যাবেন) একেবারে নিচে দেখুন। মোবাইলে পড়তে গেলে স্ক্রাইবড এপ দরকার পড়বে, সেটিও এখান থেকে নামিয়ে নিন।








"সাহিত্য উৎসব ২০১৬'  এর কিছু ছবি





Related Posts with Thumbnails