Friday, February 17, 2017

ত্রিপুরা ফোকাস, আগরতলা বইমেলা সংখ্যা, ২০১৭

ত্রিপুরা ফোকাস , পূর্বোত্তর ভারতের প্রথম ইউনিকোডে প্রকাশিত আন্তর্জাল সংবাদ পত্র। আন্তর্জালে সংবাদপত্র তো আরো আছে। কিন্তু সেসবের অন্তর্বস্তুর  কিছুই আন্তর্জাল অনুসন্ধানে দেখায় না, কেননা সেসব ছবিতে আসে।  ত্রিপুরা ফোকাস সেদিক থেকে অগ্রণী। সম্পাদনা করেন আগরলতার কবি এবং ছবি শিল্পী, ঈশানের পুঞ্জমেঘ পরিবারের সদস্য শঙ্খ সেনগুপ্ত।  ২০১০ থেকে  ফোকাস ত্রিপুরা নামে বেরুলেও, ২০১৭তে নবকলেবরে নাম পালটে হয়েছে ত্রিপুরা ফোকাস।  ২০১৭এর আগরতলা বই মেলা উপলক্ষে ছাপা পত্রিকার পাঠকদের মধ্যে নিজেদের বার্তা পৌঁছে দিতে তারা বের করেছেন একটি ছোট্ট ছাপা সংস্করণও। পূর্বোত্তরের যে কোনো আন্তর্জাল প্রকাশনার আমরা ঈশানের পুঞ্জমেঘ তথা কাঠের নৌকা সহযোগী গোষ্ঠী। নিজেদের প্রতিযোগীর বদলে সহযোগী বলে ভাবতেই আমরা পছন্দ করি। এক বড় পরিবারের সদস্য আমরা। তাই শঙ্খ যখন পিডিএফ করে ফেললেন, এবং আমাদের জানালেন তাঁর ত্রিপুরা ফোকাসের কাঠামোতে দৃষ্টিনন্দন এবং পাঠক বান্ধব করে সেটি উপস্থাপন করবার সমস্যা হল, মুস্কিল আসান করে দিচ্ছে সহযোগী কাঠের নৌকা। আমাদের এটাই তো কাজ, যেকোনো ছাপা সংস্করণের সংরক্ষণাগার।

            মূলত কিছু সৃজনী সাহিত্য এবং সাহিত্য চিন্তা দিয়ে আট পৃষ্ঠাতে সাজিয়েছেন সংস্করণটি। আশা করছি আপনাদের ভাল লাগবে। পুরোটাই এখানে পড়তে পারবেন। দরকারে নামিয়ে নিয়ে পরেও পড়তে পারবেন। আপনার শুধু দরকার পড়তে পারে এডোব ফ্লাস প্লেয়ারের, সেটি এখান থেকে নামিয়ে নিন ( ম্যাক-কাফেসিকিউরিটি সফটোয়ার এড়িয়ে যাবেন)
    

Thursday, January 12, 2017

ঘুম ভেঙে যায়






ক্ষণ কুমার ঘটক মূলত নাটক পরিচালনা করেন, অভিনয় করেন। সঙ্গে কবিতাও লেখেন। এই তাঁর কবিতার বই। তেরটি কবিতার ২৩ পৃষ্ঠার ছোট্ট বই। সব কটি কবিতার ইংরেজি অনুবাদ করেছেন পার্থপ্রতীম আচার্য। বেরিয়েছিল আগরতলা বইমেলাতে, ফেব্রুয়ারি ২০১৫তে।
               আশা করছি ভালো লাগবে। আপনি কম্পিউটারের পুরো পর্দা জুড়ে পড়তে পারেন। নামিয়ে নিয়ে অবসরে পড়তে পারেন। আপনার শুধু দরকার পড়তে পারে এডোব ফ্লাস প্লেয়ারের, সেটি এখান থেকে নামিয়ে নিন ( ম্যাক-কাফেসিকিউরিটি সফটোয়ার এড়িয়ে যাবেন) 

অভিনয় ত্রিপুরাঃ ৮ম বর্ষ, ১ম সংখ্যাঃ জুলাই-ডিসেম্বর,২০১৫

" অভিনয় ত্রিপুরা'  অষ্টম বর্ষ - প্রথম সংখ্যা (জুলাই ২০১৫ - ডিসেম্বর ২০১৫)। । এর আগেও তিনটি  সংখ্যা এসেছিল 'কাঠেরনৌকো'তে। মুনমুন ঘটকের সম্পাদনাতে বেরোয় পশ্চিম ত্রিপুরার , দক্ষিণ বাধার ঘাট থেকে।  নাটক যে অভিনয় করা বা দেখবার বাইরেও একটি সাহিত্যিক বিষয়, সাধারণত আমাদের সাহিত্যের কাগজগুলোও ভুলে থাকেন। তাই , নাটক প্রায়ই প্রকাশের মুখ দেখে না। উত্তর পূর্বাঞ্চলে বহু প্রতিভাবান নাট্যকার থাকা সত্ত্বেও করতে গেলে নাটক পাওয়া ভার হয়। অভিনয় ত্রিপুরা এই ঘরানা পালটে দিচ্ছে। নিয়মিত নাটক প্রকাশ করছে । তবে এই সংখ্যাতে কোনো প্রকাশিত নাটক নেই, আছে নাটক নিয়ে বেশ কিছু প্রবন্ধ।  লিখেছেন – হারাধন দত্ত (যাত্রাপালা ও ফেলে আসা দিন), অচ্যুত চক্রবর্তী (নাটক গুণধরের অসুখ, অন্য চোখে), নন্দন কুমার ঘোষ (ভীষ্মদেব স্মৃতি ছোটোদের নাটক প্রতিযোগিতা), শংকরী দাস (স্বাধীনোত্তর ত্রিপুরার বাংলা নাটক, দেশভাগ ও উদ্বাস্তু সমস্যা), প্রণব মজুমদার (মঞ্চে সে আর লং মার্চ), রঞ্জন গঙ্গোপাধ্যায় (এই জীবন এই থিয়েটার), নীলাঞ্জন ঘোষ (এস এফ আই আয়োজিত কলেজ নাটক প্রতিযোগিতা), রণজিৎ পুরকায়স্থ(উত্তুরে রঙ্গ)।
সম্পাদনা সমিতির অন্যতম সদস্য কবি-অভিনেতা লক্ষণ কুমার ঘটক এই সংখ্যার পিডিএফ পাঠানোতে আমরা তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ। আশা করছি অতীতের সংখ্যাগুলোও তিনি পরে পরে পাঠাবেন। পরের সংখ্যাগুলোতো পাঠাবেনই। যদি লেখা পাঠাতে চান, বা ছাপা প্রতিলিপি পেতে চান তবে আগ্রহীদের জন্যে ঠিকানা ইত্যাদি নিচে রইল।
 ছবিগুলোতে দু'বার করে ক্লিক করুন। বড় হয়ে যাবে। পড়তে পারবেন।আপনি কম্পিউটারের পুরো পর্দা জুড়ে পড়তে পারেন। নামিয়ে নিয়ে অবসরে পড়তে পারেন। আপনার শুধু দরকার পড়তে পারে এডোব ফ্লাস প্লেয়ারের, সেটি এখান থেকে নামিয়ে নিন ( ম্যাক-কাফেসিকিউরিটি সফটোয়ার এড়িয়ে যাবেন) 
Related Posts with Thumbnails